চুয়েট সেজেছে বর্ণিল সাজে : কাল সমাবর্তন

    0
    1

    365আগামীকাল সোমবার চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)’র তৃতীয় সমাবর্তনে রাষ্ট্রপতি ও এই বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর আবদুল হামিদের আগমন উপলক্ষে পুরো চুয়েট সেজেছে নতুনরূপে। বর্ণিল আলোকসজ্জা, নানা কারুকাজের সাজে সেজে পুরো ক্যাম্পাস। চুয়েটের বিভিন্ন ভবন, অভ্যন্তরীণ সড়ক, ছাত্রবাসসহ নানা স্থাপনাগুলো তকতকে ঝকঝকে করা হয়েছে। বসন্তে প্রকৃতিতে নতুন ছোঁয়া, তার সাথে যোগ হয়েছে রাষ্ট্রপতির আগমন – দুইয়ে মিলে চুয়েটের প্রকৃতিও যেন সেজেছে মনোহর রূপে। মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশ আর বিশাল ভূমিতে প্রতিষ্ঠিত দেশের দক্ষিণ-পূর্ব অঞ্চলের প্রকৌশলী তৈরীর শ্রেষ্ঠ এই বিদ্যাপীঠে সমাবর্তন উপলক্ষে রাষ্ট্রপতির আগমনকে কেন্দ্র করে শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রী, কর্মচারীসহ সংশ্লিষ্ট সবার মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে উৎসব-উদ্দীপনা। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, এদিন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ঢাকা থেকে সরাসরি হেলিকপ্টারযোগে চুয়েটে নামবেন। এজন্য চুয়েটের অভ্যন্তরে দুটি হেলিপ্যাডও প্রস্তুত করা হয়েছে। ইতিমধ্যে সেখানে বিমান বাহিনীর লোকজন মহড়াও দিয়েছেন। রাষ্ট্রপতির আগমন উপলক্ষে চুয়েটসহ আশপাশের এলাকাগুলোয় সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে আইন-শৃংখলা সংস্থার বাহিনী।32 এ প্রসঙ্গে রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, ‘রাষ্ট্রপতির চুয়েটের আগমনকালে সেখানে চট্টগ্রাম জেলা এসপি হাফিজ আকতার, এএসপি, সার্কেল এসপির নেতৃত্বে দেড় হাজার পুলিশ ফোর্স মোতায়েন থাকবে। এছাড়া এসএসএফসহ বিভিন্ন আইন-শৃংখলা বাহিনীর সদস্যও মোতায়েন থাকবে সেখানে।’ ওসি জানান, ইতিমধ্যে চুয়েটে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। আশপাশের এলাকাগুলোও বাড়তি নিরাপত্তার নজরদারিতে রাখা হয়েছে। চুয়েটের জনসংযোগ কর্মকর্তা ফজলুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘৩য় সমাবর্তনকে ঘিরে পুরো ক্যাম্পাসে নতুন সাজে সেজেছে।’
    এদিকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, সোমবার অনুষ্ঠেয় সমাবর্তনে রাষ্ট্রপতি ও এই বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর আবদুল হামিদ সভাপতিত্ব করবেন। এতে সমাবর্তন বক্তা থাকবেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ও এশিয়া প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর, বিশিষ্ট প্রকৌশল শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী। বিশেষ অতিথি থাকবেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান। বক্তব্য রাখবেন চুয়েটের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মো. জাহাঙ্গীর আলম, প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। সমাবর্তনে ১৬/১০/২০১২ইং থেকে ২৯/০২/২০১৬ ইং তারিখের মধ্যে এ c picবিশ্ববিদ্যালয় হতে স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি ডিগ্রি অর্জনকারী সকল শিক্ষার্থী অংশ নেবেন। এবারের সমাবর্তনে মোট ১৬০৩ জনকে সনদ প্রদান করা হচ্ছে। এর মধ্যে স্নাতক রয়েছেন ১৫৬৪ জন, মাস্টার্স ৩২ জন, পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডিপ্লোমা ৪ জন এবং পিএইচডি ৩ জন। কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফলের জন্য সমাবর্তনে রাষ্ট্রপতি কর্তৃক চারজনকে গোল্ড মেডেল প্রদান করা হবে। উলেখ্য, এর আগে বিআইটি পর্যায়ে ১৯৯৮ সালে ২০০৩ সালে দুটি সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়। ২০০৮ সালে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের প্রথম এবং ২০১২ সালে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে দ্বিতীয় সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here