চুয়েটে বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানমালায় মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

    0
    10

    রাউজানটাইমস ২৪ ডেস্ক :-

    1-1চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)-এ দিনব্যাপী বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানমালায় মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপিত হয়েছে। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানমালার মধ্যে ছিল জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন সহকারে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পন, চুয়েট ক্যাম্পাসে শহীদদের কবর জেয়ারত, ‘‘ মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতা ও সুখী-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে ডিজিটাল প্রযুক্তির ব্যবহার’’ শীর্ষক আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচ, শিশু-কিশোরদের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান প্রভৃতি।
    এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানমালায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো: জাহাঙ্গীর আলম।  বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়েটের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম, পুরকৌশল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মো: হযরত আলী, প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডীন এবং ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. আশুতোষ সাহা,  যন্ত্রকৌশল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মো: মাহবুবুল আলম, তড়িৎ ও কম্পিউটার কৌশল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মাহমুদ আব্দুল মতিন ভূইয়া, স্থাপত্য ও পরিকল্পনা অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মো: মোস্তফা কামাল।
    tn‘‘ মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতা ও সুখী-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে ডিজিটাল প্রযুক্তির ব্যবহার’’ শীর্ষক আলোচনা সভায় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো: জাহাঙ্গীর আলম বলেন, মহান স্বাধীনতা অর্জনে আমাদের অনেক আতœত্যাগ ছিল। সেই আতœত্যাগের মর্মে ছিল শোষণ-নির্যাতনমুক্ত সুখী-সমৃদ্ধ দেশ গঠন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি। কিন্তু কুচক্রী মহলের চক্রান্তের কারণে জাতির জনকের সেই স্বপ্নের সুখী-সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গঠন বাধাগ্রস্ত হয়েছিল। বর্তমানে আমাদের সামনে আবারো সুযোগ এসেছে সুখী-সমৃদ্ধ দেশ গঠনের। জাতির জনকের সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিচক্ষণ নেতৃত্বে আমরা মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়ে এখন উন্নত দেশের কাতারে যাওয়ার অভিযাত্রায় আছি। এই অগ্রযাত্রায় সকলকে একযোগে নিজ নিজ অবস্থান থেকে সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করে অবদান রেখে যেতে হবে।
    বিশেষ অতিথি উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেন, ৪৫ বছর আগে আমরা স্বপ্নের স্বাধীনতা পেয়েছি। প্রতিক্রিয়াশীল গোষ্ঠির চক্রান্তের কারণে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সুখী-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠন বাধা পেয়েছিল। বর্তমান সরকার আবারো সেই স্বপ্নের বাংলাদেশ গঠনের চেষ্টা করে যাচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর গতিশীল নেতৃত্ব ও নির্দেশনায় আমরা ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশ হিসেবে বিশ্বের বুকে আতœপ্রকাশ করার লক্ষে কাজ করে যাচ্ছি। এখন আমাদের সকলকে চলমান উন্নয়নে অবদান রেখে সেই উন্নয়নকে আরো টেকসই হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।
    3চুয়েটের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. ফারুক-উজ-জামান চৌধুরীর সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বিভাগীয় প্রধানগণের পক্ষে অধ্যাপক ড. সজল চন্দ্র বনিক, প্রভোস্টগণের পক্ষে অধ্যাপক ড. মো: আব্দুর রশীদ, শিক্ষক সমিতির সাধারন সম্পাদক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মশিউল হক, কর্মকর্তা সমিতির পক্ষে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আলী চৌধুরী, কর্মচারী সমিতির সভাপতি জনাব মো: জামাল উদ্দিন, যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক জনাব মাসুদ হোসেন রুবেল, ছাত্র-ছাত্রীদের পক্ষে জনাব নাফিউল ইসলাম সম্পদ ও উর্মি সাহা প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন নির্বাহী প্রকৌশলী জনাব অচিন্ত্য কুমার চক্রবর্ত্তী।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here