লিবিয়া যেতে বাংলাদেশিদের জন্য সতর্ক বার্তা

    0
    229

    BN_SM20160411212233বাংলাদেশি নাগরিকদের বিদেশ যাওয়ার আগে ভেবে চিন্তে ও খোঁজ-খবর নিয়ে বিদেশ গমন করতে সতর্ক করেছে লিবিয়ায় অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস।

    সোমবার (১১ এপ্রিল) দূতাবাসের ফেসবুক পেজে এমন সতর্ক বার্তা পোস্ট করা হয়।

    বার্তায় বলা হয়, বাংলাদেশি শ্রমিকদের জন্য উন্মুক্ত শ্রমবাজারগুলোর মধ্যে লিবিয়া অন্যতম। কতিপয় অসাধু চক্র লিবিয়ার বর্তমান অস্থিতিশীল পরিস্থিতির সুযোগে অবৈধভাবে বাংলাদেশি কর্মীদের লিবিয়ায় প্রেরণের অপচেষ্ঠায় লিপ্ত রয়েছে।

    তারা কর্মীদের প্রথমে চট্টগ্রাম বিমানবন্দর হয়ে দুবাই/ শারজাহ/ কায়রো/ আম্মান পথে লিবিয়ার পার্শ্ববর্তী দেশ সুদানে প্রেরণ করে। পরবর্তীতে তাদের সুদানের স্থল সীমান্ত হয়ে দুর্গম মরুভূমি পাড়ি দিয়ে লিবিয়ায় অনুপ্রবেশ করিয়ে দেয়।

    পথিমধ্যে কষ্টসাধ্য ২০-২৫ দিনের দীর্ঘ যাত্রায় দুর্গম মরুভূমি পাড়ি দিতে গিয়ে খাদ্য ও পানির অভাবে অনেকেই মারাও যান। যাদের মৃত্যুর পর রীতিসিদ্ধভাবে দাফন করার সুযোগও থাকে না।

    এরূপ প্রক্রিয়ায় অবৈধ অভিবাসনের ক্ষেত্রে আগত কর্মীরা সুদান ও লিবিয়ায় একাধিক মানবপাচারকারী চক্রের কাছে বিক্রিত ও অপহৃত হয়, পরে বাংলাদেশে তাদের পরিবারের কাছে মোটা অংকের মুক্তিপণ দাবি করা হয়। মুক্তিপণ না পেলে তাদের অনাহারে রেখে মারধরও করা হয়।

    সম্প্রতি এ ধরনের কয়েকটি ঘটনা দূতাবাসের কাছে উন্মোচিত হয়েছে।

    এ প্রক্রিয়ায় অবৈধভাবে আসা কর্মীদের বৃহৎ একটি অংশ কর্মহীন হয়ে পড়ায় আন্তর্জাতিক মানবপাচারকারীদের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হচ্ছে এবং তাদের মধ্যে সাগর পথে মৃত্যুর ঝুঁকি নিয়ে ইউরোপে পাড়ি জমানোর প্রবণতাও সৃষ্টি হচ্ছে। এভাবে সাগর পথে যাত্রা করে অনেকেই প্রাণ হারাচ্ছেন অথবা নিখোঁজ হচ্ছেন।

    অন্যদিকে কতিপয় অসাধু চক্র কর্মীদের বাংলাদেশ থেকে জাল ভিসা দিয়ে দুবাই/ শারজাহ/ কায়রো/ আম্মান হয়ে ছোট ছোট গ্রুপ আকারে সরাসরি ত্রিপলীর মেতিকা বিমানবন্দরে পাঠাচ্ছে।

    সম্প্রতি মেতিকা বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ জাল ভিসায় আগমনের অভিযোগে বেশ কয়েকটি গ্রুপকে লিবিয়ায় প্রবেশের অনুমতি না দিয়ে বিমানবন্দর থেকে ফের বাংলাদেশে ফেরত পাঠিয়েছে।

    এ প্রক্রিয়ায় আসা কর্মীদের ক্ষেত্রে বিএমইটির কোনো ছাড়পত্র গ্রহণ করা হয়নি। এ প্রেক্ষাপটে লিবিয়ায় অভিবাসন প্রত্যাশী সবাইকে দেশ ত্যাগের আগেই পাসপোর্টে লাগানো ভিসার সঠিকতা যাচাই করতে ও বিএমইটি থেকে ছাড়পত্র তথা স্মার্ট কার্ড সংগ্রহ করতে অনুরোধ করা হচ্ছে।

    এছাড়া তৃতীয় কোন দেশে এসে স্থল সীমান্ত হয়ে লিবিয়ায় অনুপ্রবেশ না করতে বলা হচ্ছে। পাশাপাশি বৈধ পথে লিবিয়ায় গমন করতে অভিবাসন প্রত্যাশী বাংলাদেশিদের অনুরোধ করেছে বাংলাদেশ দূতাবাস।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here