চুয়েটে নেটওয়ার্কিং এন্ড কমিউনিকেশন ল্যাব উদ্বোধন

    0
    21
    মো. সোহেল রানা :-
    366চুয়েটে আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর, আইটি ভিলেজ নির্মাণের ঘোষণা দিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ডাক, টেলিযোগাযোগ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি। তিনি বলেছেন, চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)-এর ৫ একর জমিতে ৮৯ কোটি টাকা ব্যয়ে গড়ে তোলা হবে দেশের বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের প্রথম আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর। এই বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন প্রায় ৩০০ একর জায়গায় গড়ে তোলা হবে আইটি ভিলেজ প্রকল্প। এছাড়া চুয়েটে বেঙ্গলি ল্যাঙ্গুয়েজ প্রসেসিং ল্যাব নিমার্ণে ১০ লাখ টাকা বরাদ্দ, কেন্দ্রিয় লাইব্রেরিকে বিশ্বমানের ডিজিটাল লাইব্রেরিতে রূপান্তর, উদ্ভাবনী কর্মকান্ডে অর্থায়ন, ক্রমান্বয়ে চুয়েটের ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে ১০০০টি ল্যাপটপ প্রদান, ভিএলএসআই ল্যাবের জন্য সফটওয়্যারের লাইসেন্স ফি প্রদান এবং আইটি পার্ক নির্মাণ, ইনফরমেশন একসেস সেন্টার স্থাপন, হাইস্পিড ইন্টারনেট কানেকশন ফ্যাসিলিটিজ স্থাপন, এ্যানিমেশন এন্ড মোবাইল এ্যাপস ল্যাব স্থাপন, রোবোটিক ল্যাব স্থাপন, বিগ ডাটা এন্ড ক্লাউড কম্পিউটিং ল্যাব স্থাপন, টু হানড্রেড হাই কনফিগারেশন কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন ঘোষণাও দেন মাননীয় প্রতিমন্ত্রী।
    2554তিনি গত ১০ এপ্রিল  চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)-এ ল্যাব উদ্বোধন এবং ল্যাপটপ বিতরণ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব ঘোষণা প্রদান করেন।  তিনি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ইনফো-সরকার প্রকল্পের অর্থায়নে চুয়েটের কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে প্রতিষ্ঠিত নেটওয়ার্কিং এন্ড কমিউনিকেশন ল্যাব উদ্বোধন করেন এবং এক্সিম ব্যাংকের সহযোগিতায় এবং সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের তত্ত্বাবধানে চুয়েটের কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ইলেকট্রনিক্স এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে ১০০টি ল্যাপটপ বিতরণ করেন।
    এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়েটের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মো: জাহাঙ্গীর আলম। আরো বক্তব্য রাখেন প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম, তড়িৎ ও কম্পিউটার কৌশল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মাহমুদ আবদুল মতিন ভূঁইয়া, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর জনাব এস. এম. আশরাফুল ইসলাম, ইনফো-সরকার এর প্রকল্প পরিচালক জনাব মো: সাইফুল ইসলাম, এক্সিম ব্যাংকের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং রিজিওনাল ম্যানেজার জনাব মো: মঈন উদ্দিন। সভাপতিত্ব করেন চুয়েটের কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান অধ্যাপক. ড. মোহাম্মদ মশিউল হক।
    প্রতিমন্ত্রী  জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি আরো বলেন, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ এখন আর জননেত্রী শেখ হাসিনার একার ভিশন নেই, এটি এখন ১৬ কোটি মানুষের ভিশন। জননেত্রী এই ভিশন বাস্তবায়নে সকলকেই ঐক্যবদ্ধ করতে পেরেছেন। কোন ভিশন বা রূপকল্প যখন জনগণ ধারণ করে তখন এটি অবশ্যই সফল হয়। কারো স্বপ্ন যেন অপূর্ণ না থাকে। কারো স্বপ্ন যেন মরে না যায়। এই চেষ্টা আমাদের করে যেতে হবে। শুধু চাকরি করতে হবে এমন কথা নেই। চাকরি দেয়ার কাজও করতে হবে। উদ্ভাবনী কাজে সরকারের ফান্ডের অভাব নেই। আমরা অবশ্যই ফান্ড দেব। আমি চুয়েটে আগেও এসেছি। কিন্তু ছাত-ছাত্রীদের সামনে খালি হাতে আসতে চাইনি। তাই আজ কিছু নিয়ে এসেছি। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার হাতিয়ার হিসেবে ল্যাপটপ নিয়ে এসেছি। এই ল্যাপটপ দিয়ে বিশ্বজয় করা কোন ইনোভেটিভ প্রডাক্ট উপহার দেয়ার জন্য আমি ছাত্র-ছাত্রীদেরকে অনুরোধ জানাচ্ছি। আমরা গরীব দেশের মানুষ। আমরা দ্রুত পরিশ্রম করে উন্নত ভবিষ্যতের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। পড়াশোনা করে নিজের ভাগ্য উন্নয়নই আমাদের লক্ষ্য নয়। দেশের জন্য দায়িত্ব ও কর্তব্যও আমাদের মনে রাখতে হবে।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here