চট্টগ্রামে সার কারখানার গ্যাস ছড়িয়ে পড়েছে, অসুস্থ ৫০

    0
    3

    রাউজানটাইমস ২৪ ডেস্ক :-

    চট্টগ্রামে একটি সার কারখানার অ্যামোনিয়াম ফসফেটের বার্নাল (আধার) বিস্ফোরণে বন্দর ও হালিশহর এলাকায় গ্যাস ছড়িয়ে পড়েছে। সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে দিকে চিটাগাং ইউরিয়া ফার্টিলাইজার লিমিটেডের পাশে ড্যাপ নামের একটি সার কারখানায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। কারখানাটি ড্যাপ-১ কারখানা নামেও পরিচিত ।

    এ ঘটনায় স্থানীয় লোকদের মধ্যে আতংক সৃষ্টি হয়েছে। অ্যামোনিয়া গ্যাসের তীব্রতায় অসুস্থ হয়ে পড়া অন্তত ৫০ জনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে চারজনের অবস্থা গুরুতর।

    বন্দর অঞ্চলের সহকারী কমিশনার জাহিদুল ইসলাম বলেন, সার কারখানার গ্যাস কনটেইনার (আধার) রাত নয়টার দিকে ছিদ্র হয়ে গ্যাস ছড়িয়ে পড়ে। পরে তাতে বিস্ফোরণ ঘটে। ওই কনটেইনারে ৫০০ টন অ্যামোনিয়াম ফসফেট ছিল।

    চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দায়িত্বরত এএসআই পঙ্কজ বড়ুয়া বলেন, গ্যাসের বিষক্রিয়ায় আক্রান্তদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। ড্যাপ-১ এর ব্যবস্থাপক অমল বড়ুয়া জানান,  কতজন অসুস্থ হয়েছে সঠিকভাবে বলা যাচ্ছে না।

    জানতে চাইলে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত ও পরিবেশ রসায়ন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সুমন গাঙ্গুলি বলেন, অ্যামোনিয়া গ্যাস মানুষের জন্য তেমন ক্ষতিকর নয়। পরিমাণ বেশি হলে অচেতন হয়ে পড়ার শংকা থাকে।

    ফায়ার সার্ভিসের এক কর্মকর্তা জানান, গ্যাসের কারণে পতেঙ্গায় শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের বেশ কয়েকজন যাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাদের মধ্যে পাঁচজনকে চিকিৎসার জন্য রাত একটার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

    নগরের হালিশহর এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা জানান ‘গ্যাসের গন্ধের কারণে ঘরে থাকা যাচ্ছে না। শ্বাস নিতে সমস্যা হচ্ছে।’ ফায়ার সার্ভিসের চট্টগ্রাম কার্যালয়ের উপসহকারী পরিচালক জসীম উদ্দিন জানান,  ফায়ার সার্ভিসের আটটি গাড়ি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। সেখানে কৃত্রিম বৃষ্টি ছিটানো হচ্ছে।

    তিনি জানানা, পরিস্থিতি প্রায় নিয়ন্ত্রণে এসেছে। দুর্ঘটনার কারণ জানতে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এদিকে রাত একটায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অসুস্থ ব্যক্তিদের দেখতে যান জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন ও সিভিল সার্জন আজিজুর রহমান সিদ্দিকী।

    জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন বলেন, গ্যাস ছড়িয়ে পড়লেও আতংকের কিছু নেই। লোকজনকে আতংকিত না হতে মাইকিং করা হচ্ছে।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here