বিধবার সাথে অবৈধ সম্পর্ক অত:পর বিয়ে

    0
    17

    রাউজানটাইমস ২৪. কম ডেস্ক :-

    চট্টগ্রামের পটিয়ায় ৪ সন্তানের জননীর সাথে প্রেম করে অত:পর বিয়ের পিড়িতে বসতে বাধ্য হয়েছে মল্লিক দাশ (২৮) নামের এক যুবককে। বিধবা টিংকু দাশ ৪ সন্তানের জননী। স্বামী মারা যাওয়ার পর মল্লিক দাশ টিংকু দাশের সাথে প্রেমে জড়িয়ে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তুললে স্থানীয় প্রতিবেশীরা অসামাজিক কাজে লিপ্ত দেখে তাদের হাতে নাতে ধরে দু’জনকে বিয়ের পিড়িঁতে বসায়। এ ঘটনাটি ঘটেছে চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার কচুয়াই ইউনিয়নের অলির হাটস্থ সর্দ্দারপাড়া 4-5-488x525এলাকায়। গত মঙ্গলবার তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। ঘটনার বিবরণে জানা যায়, টিংকু দাশের স্বামী স্থানীয় গৌরাঙ্গ সর্দ্দারের পুত্র বরুণ সর্দ্দার দেড় বছর পূর্বে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়। সনাতনী ধর্মমতে টিংকু দাশ বিধবা হয়ে যায়। এমনকি ধর্মানুযায়ী দ্বিতীয় বিয়ে করার কোন সুযোগ নেই। এরমধ্যে টিংকু দাশের তিন মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে। এদিকে গত ৬ মাস যাবত মল্লিক দাশ টিংকু দাশের সাথে প্রেমের সর্ম্পকে জড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে উভয়ে শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। প্রতিবেশী লোকজন তাদের এ সম্পর্ক আচঁ করতে পেরে গত ২ সেপ্টেম্বর তাদের পাহারা দিয়ে রাত ২ টার দিকে উভয়কে অসামাজিক কর্মে লিপ্ত থাকাবস্থায় তাদের ধরে ফেলে। পরে পাড়া-প্রতিবেশীদের পরামর্শমতে উভয়ে বিয়েতে রাজী হলে গত মঙ্গলবার চট্টগ্রাম প্রথম শ্রেণির হাকিমের আদালতে হলফনামা সম্পাদনের মাধ্যমে বিবাহ সম্পন্ন হয়। রোমঞ্চকর বিয়ের এ ঘটনাটি এলাকায় মুখরোচক ঘটনায় পরিণত হয়েছে।
    মল্লিক দাশ জানান,‘আমরা স্বামী-স্ত্রী এখন সুখী দাম্পত্যজীবন গড়ে তুলতে এগিয়ে যাচ্ছি। আমরা সকলের আশীর্বাদ কামনা করছি।’
    কচুয়াই ইউনিয়ন আ.লীগ নেতা খলিলুর রহমান বাবু জানান, ‘অসামাজিক কর্মকা-ের লিপ্ত দেখে এলাকার সাধারণ মানুষ তাদের হাতেনাতে ধরে ফেলে। পরে দুজন রাজী হলে স্থানীয় লোকজনের মধ্যস্থতায় তাদের মধ্যে বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে।’

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here