রাউজানে প্রতারক চক্রের খপ্পরে স্কুল ছাত্রী ও তার মা

    0
    4
    জাহেদুল আলম । রাউজানটাইমস
    বেলা তখন সাড়ে ১২টা। স্থান রাউজান পৌরসভা সদরের মুন্সিরঘাটার সিএনজি অটোট্যাক্সি স্টেশন। সেখানে চল্লিশোর্ধ মা সনজু বড়ুয়ার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা স্কুলপড়ুয়া মেয়ে পূর্বা বড়ুয়া চোখের জল ফেলছিল। এই মা-মেয়ে প্রতারণার শিকার হয়েছেন। খুইয়েছেন মোবাইল, ব্যাগ, টাকা, স্বর্ণ। দাঁড়িয়ে উপস্থিত উৎসুক মানুষদের বলছেন প্রতারক খপ্পরে পড়ার বর্ণনা। সনজু বড়ুয়া জানান, তিনি রাউজান উপজেলার বিনাজুরি ইউনিয়নের পূর্ব বিনাজুরি গ্রামের বোধি তরু

    বাড়ির বোধি ধরের স্ত্রী। গতকাল বুধবার বেলা ১২টার সময় তিনি তার মেয়ে বিনাজুরি নবীন স্কুল এন্ড কলেজের দশম শ্রেণীর ছাত্রী পূর্বা বড়ুয়াকে স্কুলব্যাগ কিনে দিতে বাড়ির কাছে বুড়ির দোকান থেকে সিএনজি অটোট্যাক্সিতে উঠেন পৌরসভা সদরের ফকিরহাটের আসার উদ্দেশে। ওই ট্যাক্সিতে ছিল যাত্রীবেশী দুই মহিলা, এক যুবক আর চালক। বাকী দুইজন ছিলেন তারা মা মেয়ে। ট্যাক্সির দুই মহিলা, যুবক ও চালক যে প্রতারকচক্রের দলের সদস্য তা টের পাননি মা মেয়ে। ওই চক্র মা-মেয়েকে মুন্সিরঘাটাস্থ ট্যাক্সি স্টেশনে নামিয়ে না দিয়ে পৌরসভার বটতল এলাকায় নিয়ে যায়। সেখানে কৌশলে সনজু বড়ুয়ার হাতে থাকা ব্যাগ, আড়াই হাজার টাকা, মোবাইল নিয়ে যায়। ওইসময় হঠাৎ নির্বোধ বণে যাওয়া সনজু বড়ুয়া তার দুই কানের স্বর্ণের দুলগুলোও প্রতারক চক্রের হাতে তুলে দেয়। কিছুক্ষণ পর মা মেয়ে হেঁটে মুন্সিরঘাটার দিকে আসার সময় টের পেতে থাকে তাদের সবকিছু নিয়ে পালিয়ে গেলো সেই ট্যাক্সির প্রতারকচক্রের দল। তারপরই মা মেয়ে কান্নায় ভেঙে পড়ে। আর উপস্থিত উৎসুকদের বলতে থাকেন আমাদের তো বাড়ি যাওয়ার গাড়িভাড়াও আর রইল না। উপস্থিতদের ধারণা, ট্যাক্সিচালকদের যোগসাজশে মহিলা প্রতারক চক্র এই লুটের কাজ করে। তবে বিষয়টি থানা পুলিশ পর্যন্ত গড়ায়নি।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here