চুয়েটে আগামীকাল রোবট খেলবে ফুটবল

    0
    3

    সোহেল রানা । রাউজানটাইমস ২৪.কম

    রোবট নিয়ে এমন খেলা দেশের মাটিতে আগে কখনোই হয়নি। হ্যাঁ, এবার চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট) -এর দেশের একঝাঁক প্রযুক্তি শিক্ষার্থীদের হাতে রোবট খেলবে ফুটবল খেলা। চুয়েট-এর রোবটিক চর্চা ও গবেষণামূলক সংগঠন রোবো মেকাট্রনিক্স অ্যাসোসিয়েশন (আরএমএ) এর উদ্যোগে আগামীকাল শুক্রবার (২৬ মে, ২০১৭ খ্রি.) চুয়েট ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে দেশের ইতিহাসে প্রথম ’ফুটবট’ (রোবটের ফুটবল খেলা) প্রতিযোগিতা। এবার তরুণ প্রযুক্তিবিদদের সমন্বয়ে দেশের ৮ টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট ৩২ টি দল অংশগ্রহণ করবে। যেখানে চুয়েট থেকে অংশ নিচ্ছে ১৮ টি দল। এবারের ’আরএমএ ফুটবট-২০১৭’ শীর্ষক প্রতিযোগিতা চুয়েটের পেট্রোলিয়াম এন্ড মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং (পিএমই) ভবনে শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে থেকে শুরু হবে। আয়োজকরা জানান, বাংলাদেশে রোবটের মাধ্যমে ফুটবল খেলার ধারণা এটাই প্রথম। যেখানে প্রথমবারের মতো ফুটবল খেলায় মাতবে যন্ত্রমানব রোবটের দল। চুয়েট রোবো মেকাট্রনিক্স অ্যাসোসিয়েশন (আরএমএ) এর আয়োজনে রোবটিক প্রতিযোগিতার এবারের আসরটি চতুর্থ হলেও রোবটের মাধ্যমে ফুটবল খেলার (ফুটবট) আয়োজন প্রথম।

    এবারের রোবটিক প্রতিযোগিতার ব্যতিক্রমী আয়োজন ‘ফুটবট’ প্রসঙ্গে চুয়েট আরএমএ সভাপতি সৈয়দ রেজাউল হক পিদিম বলেন, ‘সময় বদলেছে, বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে প্রযুক্তিতে আমাদে দেশও খুব দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। নতুন ও ব্যতিক্রমী কিছু করার অদম্য আগ্রহ থেকেই এবার আমরা রোবটকে দিয়ে ফুটবল খেলানোর আয়োজন করেছি। রোবট এখন মানুষের রিপ্লেইসমেন্ট (বিকল্প) হিসেবে কাজ করছে। এবার মানুষের নির্দেশনা অনুযায়ী রোবট ফুটবল খেলবে। সামনে রোবট নিজে নিজেই মানুষের কোন সংস্পর্শ ছাড়াই খেলবে- চুয়েট আরএমএ সেভাবেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।’

    প্রযুক্তি নির্ভর বর্তমান বিশ্বে রোবটকে মানুষের বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। রোবট সঠিক সময়ে বহুবিধ কঠিন কাজ নির্ভূলভাবে সম্পাদন করে মানুষের সীমাবদ্ধতাকেও ছাড়িয়ে যাচ্ছে। যে কারণে মানবজীবনের এমন কোন ক্ষেত্র নেই যেখানে রোবটের ব্যবহার নিয়ে গবেষণা চলছে না। মহাশূণ্য কিংবা অজ্ঞাত স্থানে অনুসন্ধান চালাতে স্পেস প্রোব রোবট, সামরিক ক্ষেত্রে স্থল-ভিত্তিক যুদ্ধে অস্ত্র ব্যবহারে সক্ষম রোবট, প্রাণীদের অনুকরণে বায়োনিক রোবট, স্থাপত্য ও নকশা ডিজাইনের কাজে মডিউলার রোবট, নির্মাণকাজে ড্রিলিং, লং-ওয়াল এবং রক ব্রেকিংয়ের জন্য অটোমেটেড রোবট, নোংরা-বিপজ্জনক বা দুর্গম স্থানে কাজ করতে কোবট রোবট কিংবা শিল্পকারখানায় শ্রমিকের বিপরীতে ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষা সহকারী হিসেবেও চলছে রোবটের ব্যবহার। তবে শক্তিমত্তা নিয়ে কোন প্রশ্ন না থাকলেও এই যন্ত্রমানবের বুদ্ধিমত্তা ও অনুভূতি শক্তির সীমাবদ্ধতার কারণে মানুষের সমতুল্য মানতে নারাজ ছিলেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু এবার খেলার মাঠে রোবটের ব্যবহার ঘটিয়ে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ক্ষেত্রে আরেক ধাপ এগিয়ে নেওয়া হচ্ছে এই যন্ত্রমানবকে।

    রোবট হচ্ছে কম্পিউটার নিয়ন্ত্রিত একটি ইলেক্ট্রিক্যাল যন্ত্র। সাধারণত রোবটের কাজকর্ম, অবয়ব ও চলাফেরা দেখে মনে হতে পারে এটি মানুষের মতই স্বেচ্ছায় কাজ করছে। এমনকি এদের কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাও আছে। যার সাহায্যে পরিবেশ বুঝে সিদ্ধান্ত নিতে পারে। কিন্তু এটি আসলে সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা অনুযায়ী কৃত্রিম কার্য সম্পাদনকারী একটি যন্ত্র। প্রযুক্তি নির্ভর বর্তমান বিশ্বে রোবট মূলত মানুষের বিকল্প হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। যন্ত্রমানবটি নিজে বিভিন্ন কাজে যেমন মানুষকে সাহায্য করছে তেমনি কোন কোন ক্ষেত্রে মানুষকেও ছাড়িয়ে যাচ্ছে। প্রযুক্তির উন্নয়নের সাথে সাথে মানব জীবনের প্রতিটি স্তরে এখন রোবটের ব্যবহার ক্রমবর্ধমান হারে বেড়ে যাচ্ছে। তবে রোবটের বহুবিধ ব্যবহারের কারণে অদূর ভবিষ্যতে কর্মক্ষেত্রে শ্রমিকদের অপ্রচলিত করে দেওয়ার পাশাপাশি বেকারত্ব বাড়িয়ে দেবে বলেও বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here