জাতীয় শোক দিবসে এক হাজার পাঁচশ ব্যাগ রক্ত সংগ্রহ হবে রাউজানে :ফজলে করিম চৌধুরী এম,পি’র উদ্যোগ

    0
    1

    নেজাম উদ্দিন রানা :
    গত তিন বছর ধরে শ্রেষ্ট রক্ত দাতা প্রতিষ্টান হিসেবে সন্ধানীর কাছ থেকে পুরষ্কার হাতে নিয়েছে রাউজান উপজেলা আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গসংগঠনসমূহ। পুরষ্কারের আশায় কিংবা লোভে নয়, নয় রেকর্ডের তালিকায় নাম উঠানোর আকাঙ্খায়। ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে সংগৃহীত রক্ত দিয়ে মানুষের জীবন বাঁচানোর মহৎ উদ্দেশ্যে নিয়েই নেতা-কর্মীদের এই মানবিক কাজে ঝাঁপিয়ে পড়ার আহবান জানান রাউজানের সাংসদ এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী এম,পি। অতীতে জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্টানে কখনো হাজারের কাছাকাছি ব্যাগ রক্ত সংগ্রহ করা হলেও এবারের শোক দিবসের অনুষ্টানে দেড় হাজার ব্যাগ রক্ত সংগ্রহের লক্ষ্যে নিয়েই কাজ শুরু করেছে রাউজান উপজেলা আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গসংগঠনসমূহের নেতা-কর্মীরা। শুধু রাজনৈতিক কর্মী নয় রক্ত সংগ্রহের এই মানবিক কাজে স্বেচ্ছায় অংশ নিচ্ছেন স্কুল, মাদ্রাসা,কলেজ, ভার্সিটির ছাত্র/ছাত্রী থেকে শুরু করে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ। ইতিমধ্যেই এলাকার প্রতিটি ওয়ার্ডে দলীয় নেতা-কর্মীদের মাধ্যমে স্বেচ্ছায় রক্ত দান করতে ইচ্ছুক এবং সক্ষম ব্যক্তিদের কাছে সন্ধানীর রক্ত দানের ফরম পৌঁছে তাদের তালিকাভূক্ত করার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়েছে। রাউজান উপজেলা আওয়ামীলীগের পক্ষ হতে রক্ত সংগ্রহকারী স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সন্ধানী’র হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে দেড় হাজার পিস রক্তের ব্যাগ। উপজেলা পরিষদ চত্বরে প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদ আর পৌর এলাকার জন্য তৈরী করা আলাদা আলাদা বুথে রক্ত সংগ্রহ করা হবে। প্রতিটি বুথে রক্ত সংগ্রহ কাজে সন্ধানী’র তত্ত্বাবধায়ক, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তার, ইন্টার্নি ডাক্তার ও নার্স থাকবে। এ কাজে রক্ত সংগ্রহকারী স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সন্ধানীর টিমকে সহযোগিতা করবে রাউজান উপজেলা আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গসংগঠনসমূহের নির্দিষ্ট স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী, তাদের সাথে সার্বিক সহযোগিতায় থাকবে উপজেলার বেশ কিছু স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের কর্মীরা।
    বিগত কয়েকদির ধরে জাতীয় শোক দিবসে রক্ত দান কর্মসূচি সফল করতে উপজেলার ১৪টি ইউনিয়ন ও পৌর এলাকার ৯টি ওয়ার্ডে সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে স্ব স্ব এলাকার কমিটি’র নেতৃবৃন্দ। দেড় হাজার ব্যাগ রক্তদান কর্মসূচির অংশ হতে পেরে সবার মাঝে বিরাজ করছে উৎফুল্ল ভাব। আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীরা রক্তদানে সবাইকে উদ্বুদ্ধ করতে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে প্রচারণা চালাচ্ছেন। রাউজান পৌরসভার ২য় প্যানেল মেয়র, জমির উদ্দিন পারভেজ বলেন, আমাদের এম,পি মহোদয় কিছুদিন পূর্বে এক ঘন্টায় সাড়ে চার লক্ষ ফলদ গাছের চারা রোপন করে সারা বিশ্বের বুকে একটি নজির সৃষ্টি করেছেন। তিনি সব সময় ভালো কিছু করার চিন্তা করেন। তারই নির্দেশে জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্টানে রক্তদান কর্মসূচি আমরা পালন করে আসছি। এবার অতীতের যে কোনো সময়ের চাইতে বেশী পরিমাণ ব্যাগ রক্ত সংগ্রহের উদ্যোগ হাতে নিয়েছি আমরা। ইতিমধ্যেই সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। আশা করি লক্ষ্যে মাত্রার চাইতে আরো বেশী রক্ত আমরা সংগ্রহ করতে পারবো।
    পাহাড়তলী ইউ পি চেয়ারম্যান রোকন উদ্দিন বলেন, ‘শোক দিবসের অনুষ্টানে দেড় হাজার ব্যাগ রক্ত সংগ্রহ কর্মসূচি খুবই মহৎ একটি উদ্যোগ। আমরা এই কর্মসূচি সফল করতে যাবতীয় প্রস্তুতি গ্রহণ করেছি। আমার ইউনিয়নে রক্ত দানে সক্ষম ব্যক্তিদের রক্ত দানে উদ্বুদ্ধ করে সন্ধানীর ফরমে তাদের তালিকাভূক্তির মাধ্যমে আমরা শোক দিবসে অবশ্যই দেড় হাজার ব্যাগ রক্ত দান করতে সক্ষম হব।’
    উরকিরচর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক মহিউদ্দিন ইমন ও পূর্ব গুজরা ইউ পি’র প্যানেল চেয়ারম্যান দিদারুল আলম বলেন,‘রক্তদান নিঃসন্দেহে একটি ভালো কাজ। কারণ এই রক্তই জীবন বাঁচাবে। আমাদের এম,পি মহোদয় জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্টানে রক্ত দানের মতো একটি মহৎ উদ্যোগ হাতে নিয়েছে। আমরা নিজেরাই রক্ত দেব পাশাপাশি আমাদের প্রতিবেশীদের রক্ত দানে উৎসাহ দেওয়ার চেষ্টা করছি।’
    যুবনেতা তপন দে বলেন,‘ দেড় হাজার ব্যাগ রক্ত দান কর্মসূচির অংশ হতে পেরে নিজেকে গর্বিত মনে হচ্ছে। ’

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here