শরনার্থী ক্যাম্প ছেড়ে সড়কে ভিড় জমাচ্ছে রোহিঙ্গারা, ত্রাণের জন্য হাহাকার

    0
    73


    নেজাম উদ্দিন রানা, উখিয়ার কুতুপালং থেকে ফিরে :
    উখিয়ার কুতুপালংয়ে রোহিঙ্গা শরনার্থীদের মাঝে বিতরণ করতে প্রতিদিন ছুটে যাচ্ছে অসংখ্য ত্রাণবাহী গাড়ী। শরনার্থী ক্যাম্প থেকে ছুটে এসে সারি সারি রোহিঙ্গার দল দাঁড়িয়ে থাকছেন সড়কের দুই পার্শ্বে। ত্রাণবাহী গাড়ী ছুটে আসতে দেখলেই হাজার হাজার রোহিঙ্গা দৌঁড়ে ছুটে যাচ্ছেন গাড়ীর দিকে। এ সময় অনেকটা বাধ্য হয়েই রোহিঙ্গাদের জটলায় মাঝে সড়কের উপর দাঁড়িয়েই ত্রাণ বিতরণ করতে হচ্ছে ত্রান বিতরণকারী বিভিন্ন সংগঠনের লোকজন। ফলে একদিকে যেমন প্রচন্ড ভীরে ত্রাণ নিতে গিয়ে আহত হচ্ছে মানুষ অপরদিকে সড়কে সৃষ্টি হওয়া মানুষের জটলার ফলে ঘন্টার পর ঘন্টা আটকে পড়ছে ত্রাণবাহী গাড়ীগুলো। স্থানীয় প্রশাসন মাইকিং করেও রোহিঙ্গাদের শরনার্থী ক্যাম্পে ফিরে যাওয়ার জন্য বারবার তাগাদা দিলেও হাজার হাজার রোহিঙ্গা নারী-পুরুষের অবস্থান সড়কের উপর। ফলে একটি নির্দিষ্ট জায়গাতেই ত্রাণগুলো বিতরণ করেই ফিরে যেতে হচ্ছে ত্রাণ বিতরণ করতে দেশের বিভিন্ন স্থান হতে ছুটে আসা মানুষগুলোকে। আর যারা পূর্ব থেকেই বিভিন্ন সংস্থার সাথে যোগাযোগ করেই ত্রাণ বিতরণ করতে উখিয়ার কুতুপালং এলাকায় ছুটছে তারাই কেবল কিছুটা দূরে গিয়ে নতুন করে ছুটে আসা রোহিঙ্গা শরনার্থীদের মাঝে ত্রাণ বিতরন করতে সক্ষম হচ্ছেন। অবস্থা এমন, ত্রাণের গাড়ী দেখলেই গতিরোধ করে ত্রাণের জন্য হামলে পড়ছেন রোহিঙ্গারা। সরেজমিনে উখিয়ার কুতুপালং, পালংখালীসহ আরো বেশ কয়েকটি জায়গা ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।
    প্রতিদিন সীমান্ত পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে ছুটে আসা রোহিঙ্গা শরনার্থীদের একাংশ যে যেদিকে পারছে সড়কের আশপাশ ঘেঁষেই অবস্থান করছে। তাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, মূল সড়ক হতে একটু ভেতরে অবস্থান করলে ত্রান পাওয়া কষ্টকর হয়ে যায় তাদের জন্য কারণ সড়কের আশপাশের মানুষগুলোই ত্রাণ হাতে পায়। মূল সড়ক হতে কিছুটা ভেতরে শরনাথী ক্যাম্পে অবস্থান করা অনেক রোহিঙ্গা পরিবার বেশ কয়েকদিন ক্যাম্পে অবস্তান করেও ত্রাণ হাতে পায়নি। কারণ ত্রাণ বিতরণ করতে আসা গাড়ীগুলো সড়কের দ্ইু পাশে অবস্থান করা রোহিঙ্গাদের জটলার কারণে ভেতরে গিয়ে ত্রাণ দিতে হিমশিম খাচ্ছে। ত্রাণ সামগ্রী বিতরণে স্থানীয় প্রশাসনের নির্দেশনাও অনেকটা উপেক্ষিত। যে যার মতো করে যেখানে সেখানে ত্রাণ বিতরণের ফলে সড়কের উপর হুমড়ি খেয়ে পড়ছে মানুষ। কোলে বাচ্চা নিয়ে পুরুষদের মাঝে ভিড়ে হিমশিম খাচ্ছে অসহায় নারীরা। এই অব্যাবস্থাপনার ফলে অনেকেই ভিরের মধ্যে পড়ে আহত হচ্ছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, যেখানেই ত্রাণ বিতরণ হচ্ছে তার আশপাশে প্রচুর ভীড়।

    ফলে বিশৃংখল অবস্থায় অনেকটা বাধ্য হয়েই বিতরণকারীরা গাড়ীর উপর থেকে ত্রাণের প্যাকেটগুলো ছুঁড়ে দিচ্ছেন জটলার মধ্যে। প্যাকেটটি হাতে নিতে হুমড়ি খেয়ে পড়ছে অসংখ্য মানুষ। ত্রাণের জন্য তুমুল হাহাকার সর্বত্র। হাতেগোনা কয়েকটি জায়গায় আইনশংখা বাহিনীর সদস্যরা সারিবদ্ধ ভাবে লোকজনকে দাঁড় করিয়ে ত্রাণ নিতে সহায়তা করলেও বেশীরভাগ জায়গায় কিন্তু শৃংখলাহীন পরিবেশ দেখা গেছে। ফলে একদিকে যেমন ত্রাণ নিতে ছুটে আসা লোকজনের মধ্যে অনেকেই ভীড়ের মধ্যে চাপা পড়ে আহত হচ্ছেন পাশাপাশি ত্রাণ বিতরণ করতে যাওয়া লোকজনও কিন্তু চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। প্রশাসন তরিৎ গতিতে এই বিশৃংখলা নিয়ন্ত্রণ করতে না পারলে কঠিন আকার ধারণ করবে ত্রান বিতরণের এই দৈন্যদশা।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here